ঢাকা: দুপুর ১:৪৬ মিনিট, শুক্রবার, ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ ,গ্রীষ্মকাল, ১১ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি
জাতীয়বিশেষ প্রতিবেদন

করোনাভাইরাস: না ঘাবড়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার

করোনাভাইরাস সর্কতা

এএনবি নিউজএজেন্সি ডটকমনিজস্ব প্রতিবেদক,এএনবি নিউজএজেন্সি ডটকম: শনিবার ঢাকার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠানে সরকার প্রধানের এই আহ্বান আসে।

তিনি বলেন, “একটি সমস্যা সারা বিশ্বব্যাপী এখন… সেই করোনাভাইরাস। এই করোনাভাইরাস করতে করতে অনেক দেশ এখন অর্থনৈতিকভাবেও সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। আমরা কিন্তু সারাক্ষণ মনিটর করছি। কোথাও যদি কোনো সমস্যা দেখা দেয় যথাযথ ব্যবস্থা আমরা নিচ্ছি।

“এই ক্ষেত্রে আমি বলব সবাইকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে।… প্রতিদিনই কিন্তু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে, যে কীভাবে চলতে হবে, কীভাবে কাজ করতে হবে। সবাইকে সেই নির্দেশনাগুলো মেনে চলার জন্য আমি অনুরোধ করব।”

নভেল করোনাভাইরাস মূলত শ্বাসতন্ত্রে সংক্রমণ ঘটায়। এর লক্ষণ শুরু হয় জ্বর দিয়ে, সঙ্গে থাকতে পারে সর্দি, শুকনো কাশি, মাথাব্যথা, গলাব্যথা ও শরীর ব্যথা। সপ্তাহখানেকের মধ্যে দেখা দিতে পারে শ্বাসকষ্ট। উপসর্গগুলো হয় অনেকটা নিউমোনিয়ার মত।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ভালো হলে এ রোগ কিছুদিন পর এমনিতেই সেরে যেতে পারে। তবে ডায়াবেটিস, কিডনি, হৃদযন্ত্র বা ফুসফুসের পুরোনো রোগীদের ক্ষেত্রে ডেকে আনতে পারে মৃত্যু।

নভেল করোনাভাইরাস এর কোনো টিকা বা ভ্যাকসিন এখনো তৈরি হয়নি। ফলে এমন কোনো চিকিৎসা এখনও মানুষের জানা নেই, যা এ রোগ ঠেকাতে পারে। আপাতত একমাত্র উপায় হল, যারা ইতোমধ্যেই আক্রান্ত হয়েছেন বা এ ভাইরাস বহন করছেন- তাদের সংস্পর্শ এড়িয়ে চলা।

চিকিৎসকরা বলছেন, সংক্রমণ এড়াতে চাইলে ঘন ঘন হাত ধোয়া ভালো। সেই সঙ্গে নিত্য ব্যবহার্য সামগ্রীও নিরাপদ রাখতে হবে।

গত ডিসেম্বরের শেষদিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হয়, যা ইতোমধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে প্রায় ১০০ দেশ ও অঞ্চলে।

বিশ্বজুড়ে ১ লাখ ৫ হাজারের বেশি মানুষ এ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে; মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৫৯৫ জনের। তিন দেশে অবস্থানরত সাতজন বাংলাদেশি নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেও বাংলাদেশে এখনও কারও মধ্যে এ ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েনি।

ওসমানী মিলনায়তনের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “প্রত্যেকে যদি এ ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টি করতে পারেন এবং সেভাবে মেনে চলতে পারেন, ইনশাল্লাহ… এই ধরনের সমস্যা মোকাবেলা করতে আমাদের যথেষ্ট সক্ষমতা আছে, আমরা তা পারব।”

কভিড-১৯ নাম পাওয়া এ রোগ নিয়ে ‘ঘাবড়ানোর কিছু নেই’ মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, “আমাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার এই নির্দেশনাগুলো মেনে চলতে সকলকে আমি অনুরোধ জানাচ্ছি।”

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফাজিলাতুন নেসা ইন্দিরার সভাপতিত্বে নারী দিবসের এই আলোচনা সভা হয়।

Hur Agency

এমন আরো সংবাদ

Back to top button