ঢাকা: রাত ১২:০২ মিনিট, শুক্রবার, ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ ,গ্রীষ্মকাল, ১১ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি
খেলাধুলাবিশেষ প্রতিবেদন

আগামী ১ ডিসেম্বর কাঠমাণ্ডু-পোখারায় শুরু হতে যাচ্ছে এসএ গেমসের ত্রয়োদশতম আসর

১ ডিসেম্বর শুরু হতে যাচ্ছে এসএ গেমসের ত্রয়োদশতম আসর

এএনবি নিউজএজেন্সি ডটকম ক্রীড়া প্রতিবেদক, এএনবি নিউজএজেন্সি ডটকম : দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ১৯৯৯ সালে ফুটবলে প্রথম সোনা জিতেছিল বাংলাদেশের ছেলেরা। এরপর ২০১০ সালে এসেছে আরেকটি সোনা। সেবারই ছিল শেষ সোনালী সাফল্য। ২০১৬ আসরের প্রাপ্তি ছিল ব্রোঞ্জ। আগামী ১ ডিসেম্বর কাঠমাণ্ডু-পোখারায় শুরু হবে এসএ গেমসের ত্রয়োদশতম আসর। ২৭টি ডিসিপ্লিনের মধ্যে ২৫টিতে অংশ নিবে বাংলাদেশ। তবে যথারীতি ফুটবলকে ঘিরে থাকবে বাড়তি উন্মাদনা।

এবারের অভিযানে আগামী বুধবার নেপাল রওনা দেবেন জামাল-জীবনরা। দল নিয়ে কোচ জেমি ডে প্রস্তুতিও শুরু করবেন নেপালে।

বাংলাদেশ কোচ ভারতকে নিয়ে কিছুটা চিন্তিত। পদকের প্রশ্নে তিনি বরাবরের মতোই সাবধানী।

“আমি মনে করি, একটি পদক জয় আমাদের লক্ষ্য এবং আমরা সেটি জয়ের জন্য চেষ্টা করব। যদি সেরা তিনে থাকতে পারি, তাহলেই আমি খুশি থাকব।”

“প্রথম ম্যাচটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, প্রথম ম্যাচের একদিন পর আমরা ভুটানের বিপক্ষে খেলব এবং গ্রুপের শেষ ম্যাচে নেপাল-ভুটান খেলবে। সেখানে নেপালের জানা থাকবে অন্য গ্রুপের দল ভারতকে এড়াতে তাদের কী (ফল) দরকার।”

ফরোয়ার্ড জীবন অবশ্য ভারতকে নিয়ে খুব একটা ভাবিত নন। গত বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে ১৬ গোল করা ফুটবলার বললেন, কিছুদিন আগে ভারতে গিয়ে ড্র করে ফেরা ম্যাচটি থেকেই বিশ্বাস পাচ্ছেন তিনি।

“আমাদের দলটা ভালো। ভারসাম্য আছে। আমি বিশ্বাস করি, এই দলটার সোনার পদক জয় সম্ভব। ভারতকে নিয়ে ভাবার কিছু নেই। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ওদেরকে তো ওদের মাঠেই হারাতে পারতাম, যদি আমার শটটা গোললাইন থেকে ফিরে না আসত। যেখানে ওদের জাতীয় দলকে আমরা এই অবস্থায় ফেলতে পারি, বয়সভিত্তিক দল নিয়ে তো ভয়ের কিছু নেই।”

জামালও আশাবাদী নেপাল থেকে সেরার মুকুট নিয়ে ফেরা নিয়ে। সতীর্থদের সামর্থ্যে দারুণ আস্থা অধিনায়কের।

“আমাদের লক্ষ্য ফাইনালে জয়। এই দলটা জাতীয় দলের মতোই। তিন বা চারজন সিনিয়র প্লেয়ার থাকবে না, এই তো। আমরা এশিয়ান গেমসে খেলেছি। কাতারের মতো দলকে হারিয়ে দ্বিতীয় পর্বে গিয়েছি, যেটা আমাদের অনুপ্রেরণা জোগাবে।”

“নেপালে অতীতে আমাদের খেলার অভিজ্ঞতা আছে। আগে যারা নেপালে খেলে এসেছে, তারা ছিল অন্যরকম। তাদের চেয়ে এই দলের ফিটনেস এবং সামর্থ্য বেশি।”

Hur Agency

এমন আরো সংবাদ

Back to top button