তথ্যপ্রযুক্তিবিনোদনবিশেষ প্রতিবেদন

শেষ হলো গত সোমবার শুরু হওয়া ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো “মেইড ইন বাংলাদেশ”

ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো ২০১৯ইং

এএনবি নিউজএজেন্সি ডটকমনিজস্ব প্রতিবেদক, এএনবি নিউজএজেন্সি ডটকম: গতকাল শেষ হলো গত সোমবার শুরু হওয়া রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো “মেইড ইন বাংলাদেশ” ।

ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপোতে এআইল্যাব ইনোভেশন প্রকল্পের হয়ে বিশেষ আকর্ষণ ছিল “আফরিন রোবট” ।

রোবটটির আবিষ্কারক ইঞ্জিনিয়ার মুহাম্মদ ইমতিয়াজ উদ্দিন চৌধুরীর কাছ থেকে জানা যায়, এই রোবটটি বাংলায় পড়তে, শুনতে ও বলতে পারে। এটি হাত-পা চালাতে ও চলতে সক্ষম, এটি মানুষের প্রশ্ন শুনে উত্তর দিতে এবং যেকোনো ভয়েজ কমান্ড শুনে সেই অনুযায়ী কাজ করতে সক্ষম, মজার ব্যাপার হচ্ছে আফরিন রোবটটি মানুষের মত তার মুখের অঙ্গ-ভঙ্গি করতে সক্ষম অর্থাৎ তাকে যদি বলা হয় হাসতে, সে খুব মিষ্টি করে হাসি দিতে পারে। এটি ব্যাংক, হাসপাতাল সহ বিভিন্ন কমার্শিয়াল সেবা দিতেও সক্ষম।

এক্সপোতে আসা দর্শনার্থীদের কাছে জানা যায়, এই রোবটটি বাংলাদেশে আসা সুফিয়া রোবটকে পেছনে ফেলে দিয়েছে ।

এরপর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের এক্সপোতে জাতীয় স্টার্টআপ ক্যাম্প থেকে আসা সেরা ৩০ স্টার্টআপকে নিয়ে শুরু হয় সেরা ১০ স্টার্টআপ নির্বাচনের পিচিং সেশন।

পরে আইডিয়া প্রকল্পের বাছাই কমিটি চূড়ান্ত বাছাই কার্যক্রম সম্পন্ন করে।

শীর্ষ ৩০ এ থাকা অপর ২০ স্টার্টআপ রানারআপ হিসেবে আইডিয়া প্রকল্প থেকে গ্রুমিং ও বিশেষ প্রশিক্ষণ নেওয়ার সুযোগ পাবে।

প্রশিক্ষণ শেষে স্টার্টআপগুলো প্রস্তুত হলে তাদের জন্যও অনুদান প্রদান করবে আইডিয়া প্রকল্প।

এএনবি নিউজএজেন্সি ডটকম

২ হাজার ৫০০ স্টার্টআপ তাদের উদ্ভাবনী আইডিয়া নিয়ে এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। এদের মধ্য থেকে প্রাথমিকভাবে ৮টি বিভাগ এর ২৪টি ভেন্যু থেকে ৭৫টি স্টার্টআপ বাছাই করা হয়।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আওতায় বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের অধীনে উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমি প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প (আইডিয়া) দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজন করছে এই প্রতিযোগিতা।

উদ্ভাবনী ভাবনা ও উদ্যোক্তা খোঁজার এই আয়োজনে সহায়তা করছে সেন্টার ফর রিসার্চ এন্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) ইয়াং বাংলা প্ল্যাটফর্ম।

বিজয়ী তরুণদের হাতে ‘বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্রান্ট’ তুলে দেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক।

যে ১০টি স্টার্টআপ গ্রান্ট পেয়েছে সেগুলো হচ্ছে, ঝুপরি ডটকম, ভিশন আইটি, ওয়ার্ল্ড এক্সজাম্পল, ইলেকট্রিক স্কেটেবল অ্যান্ড ওয়াকেবল সু, এডুবট, অবসর, ডিজিটং, ক্রস রোড ইনিশিয়েটিভ, ব্ল্যাকবোর্ড এবং কগনিশন ডট এআই।

এই ১০ প্রকল্পের প্রতিটিকে ১০ লাখ টাকা করে অনুদান দেয়া হয়েছে। সবমিলিয়ে দেওয়া হয়েছে কোটি টাকা।

এ ছাড়া সমাপণী অনুষ্ঠানে এটুআইয়ের আইল্যাবের চারটি উদ্ভাবনকে পুরষ্কার দেওয়া হয়।  যার মধ্যে দুটি প্রকল্পের আবিষ্কারক ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার মুহাম্মদ ইমতিয়াজ উদ্দিন চৌধুরী ।

 

ট্যাগ

এমন আরও সংবাদ

Close
Close