অপরাধবিশেষ প্রতিবেদন

‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছে টঙ্গীতে গ্রেপ্তারকৃত আসামি

টঙ্গীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

এএনবি নিউজএজেন্সি ডটকমগাজীপুর প্রতিনিধি,এএনবি নিউজএজেন্সি ডটকম: মঙ্গলবার রাত দেড়টার দিকে গাজীপুরা বাঁশপট্টি এলাকায় গোলাগুলির ওই ঘটনা ঘটে বলে মহানগর পুলিশের উপ কমিশনার (ক্রাইম) মো. শরিফুর রহমানের ভাষ্য।

নিহত মো. কাউসার (২৮) টঙ্গীর এরশাদ নগরের ৬ নম্বর ব্লকের মিন্টু মিয়ার ছেলে। তার বিরুদ্ধে টঙ্গী থানায় ছিনতাই ও ডাকাতির পাঁচটি মামলার তথ্য দিয়েছে পুলিশ।

উপ কমিশনার শরিফ বলেন, এরাশাদনগর এলাকার ‘কুখ্যাত ছিনতাইকারী’ কাউসারকে মঙ্গলবার মধ্যরাতে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে তার সহযোগীদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের একটি দল তাকে নিয়ে গাজীপুরা বাঁশপট্টি এলাকায় অভিযানে যায়।

“সেখানে পৌঁছানোর পর কাউসারকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে তার সহযোগীরা। এ সময় তাদের সঙ্গে পুলিশের গোলাগুলি হয়। এক পর্যায়ে কাউসারের গায়ে গুলি লাগলে অন্যরা পালিয়ে যায়।”

গুলিবিদ্ধ কাউসারকে প্রথমে টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসাপাতালে এবং সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার ভোরে তার মৃত্যু হয় বলে উপ কমিশনার শরিফ জানান।

তিনি বলেন, টঙ্গী পূর্ব থানার এসআই জহুরুল ইসলাম এবং কনস্টেবল মো. বদরুলও এ অভিযানে আহত হয়েছেন। তাদের হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসাপাতালের রেজিস্ট্রারের বরাত দিয়ে জরুরি বিভাগের নার্স মো. তারিকুল ইসলাম জানান, রাত ৩টার দিকে গুলিবিদ্ধ কাউসারকে সেখানে নেওয়া হয়। জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. মাসুদ রানা তাকে ঢাকা মেডিকেলে নেওয়ার পরামর্শ দেন।

ঢাকা মেডিকেল পুলিশ ফাঁড়ির এসআই বাচ্চু মিয়া জানান, টঙ্গী থেকে কাউসারকে ভোরের দিকে হাসপাতালে আনা হয়। ভর্তি হওয়ার কিছুক্ষণ পর তার মৃত্যু হয়।

এমন আরও সংবাদ

Back to top button