জাতীয়

সশস্ত্রবাহিনী মাঠে উপস্থিত থাকলে আস্থা বাড়বে ভোটারদের : কে এম নূরুল হুদা (সিইসি)

সশস্ত্রবাহিনী থাকায় ভোটারদের আস্থা

এএনবি নিউজএজেন্সি ডটকম নিজস্ব প্রতিবেদক, এএনবি নিউজএজেন্সি ডটকম: একাদশ জাতীয় নির্বাচনে সশস্ত্রবাহিনীর সদস্যরা মাঠে নামায় ভোটারদের আস্থা বাড়বে বলে মনে করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা।

ঢাকার রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটের মহড়া (মক ভোটিং) পরিদর্শনে গিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

এক প্রশ্নে সিইসি বলেন, “সেনাবাহিনী মোতায়েনের উদ্দেশ্যই হল- ভোটারদের মনে আস্থা তৈরি করা। সেনাবাহিনী মোতায়েনের ফলে ভোটারদের মনে আস্থা বাড়বে”।

সংঘাত পরিহার করতে দলগুলোর প্রতি অনুরোধ জানান তিনি।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর ভোটের উৎসবে মেতে উঠবে দেশ। ওইদিন ২৯৯টি সংসদীয় আসনে ভোট দেবেন ভোটাররা।

এ ভোটকে সামনে রেখে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আইন শৃঙ্খলাবাহিনী মোতায়েন সংক্রান্ত পরিপত্র জারি করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বিজিবি, পুলিশ, র‌্যাব, আনসার ও ভিডিপি, গ্রাম পুলিশসহ সংশ্লিষ্টবাহিনীর সদস্যরা নির্বাচনী এলাকায় মোতায়েন থাকছে।

ভোট উপলক্ষ্যে ২৪ ডিসেম্বর থেকে ১০ দিনের জন্য সশস্ত্রবাহিনী মোতায়েন থাকবে।

সিইসি বলেন, “এ সুযোগে আমি সব রাজনৈতিক দলের কাছে বিনীতভাবে অনুরোধ করি- নির্বাচন যেন নির্বাচনের মতো হয়। সহিংসতা, নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি, তর্ক-বিতর্ক, হাঙ্গামা পরিহার করে কেবল মাত্র নির্বাচনী প্রচারণার মাধ্যমে নির্বাচনে নিবদ্ধ থাকার জন্য অনুরোধ করি।”

সেনাবাহিনী সব ধরনের দায়িত্ব পালন করবে বলে উল্লেখ করে সিইসি বলেন, “আইন-শৃঙ্খলারক্ষার জন্য সেনাবাহিনী যে কোনো দায়িত্ব পালন করবে।

এমন আরও সংবাদ

Back to top button